বালিয়াকান্দিতে ফেইসবুকে ছবি পোষ্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ ॥ আহত ৯ - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Friday, May 22, 2020

বালিয়াকান্দিতে ফেইসবুকে ছবি পোষ্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ ॥ আহত ৯

”হাতে বালতি, ঘাড়ে কোদাল, মাথায় গামছা বাধা, ছবির উপর মোবাইল নম্বর দেওয়া, তাতে লেখা কারো যদি পায়খানা পরিস্কার করার জন্য দরকার হয় যোগাযোগ করুন”।

স্টাফ রিপোটার ॥ ”হাতে বালতি, ঘাড়ে কোদাল, মাথায় গামছা বাধা, ছবির উপর মোবাইল নম্বর দেওয়া, তাতে লেখা কারো যদি পায়খানা পরিস্কার করার জন্য দরকার হয় যোগাযোগ করুন”। এ রকম একটি ছবি সম্মতিতে ফেইসবুকে পোষ্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ৩ দফা সংঘর্ষ, বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর ও মারধোরে ৯জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের পাটকিয়াবাড়ী গ্রামে।

পাটকিয়াবাড়ী গ্রামের মোহন শেখের ছেলে আহাদ আলী শেখ বলেন, গত ১৭ মে কাজের সময় একই গ্রামের শাহামত মন্ডল তার ”হাতে বালতি, ঘাড়ে কোদাল, মাথায় গামছা বাধা, ছবির উপর মোবাইল নম্বর দেওয়া, তাতে লেখা কারো যদি পায়খানা পরিস্কার করার জন্য দরকার হয় যোগাযোগ করুন” একটি ছবি তুলে ফেইসবুকে পোষ্ট দিতে বলে। এ ভাবে পোষ্ট দেওয়ার পর তার ছেলে শিহাব বাড়ীতে এসে আহাদ আলী শেখ ও তার বাবা মোহন শেখকে মারধোর করে। ফেইসবুক থেকে ছবি ডিলিট করতে বলে। পরে ছবিটি ডিলিট করা হয়। বুধবার সন্ধ্যায় শিহাব, ইশারত, বাচ্চু কাজী, জিহাদ কাজী, রাকিব, মিঠুন, মনিরুল, মিজান, সিদ্দিকসহ ১০-১২জন মিলে বসতবাড়ীতে হামলা করে। তারা বাড়ীর টিনের বেড়া কুপিয়ে ও পাটকাঠি এবং খড়ের কাদায় আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় তাদের মারপিটে মতিয়ার, লাবলু শেখ, শহীদ শেখ আহত হয়। তাদের ভয়ে বাড়ী থেকে বের হতে পারছি না। আহতদেরকে স্থানীয় চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করানো হচ্ছে।

শাহামত আলীর স্ত্রী সেলিনা বেগম বলেন, ফেইসবুকে ছবি দেওয়া নিয়ে গ্রামের লোকজন তাদের পক্ষ নিয়ে মারধোর করে। মারধোরে শাহামত মন্ডল, তছিরন বেগম, রাকিব, বাচ্চু কাজী আহত হয়। তাদেরকে বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন বলেন, উভয় পক্ষকে মারামারি না করতে অনুরোধ করেছি। তারপরও তারা এধরনের কাজ করেছে। করোনার কারণে তাদেরকে শান্ত হতে বলেছি পরে শালিসে মিমাংসা করে দেওয়া হবে।
এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

No comments:

Post a Comment