বালিয়াকান্দিতে ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে ভাটার মালিকের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Friday, May 15, 2020

বালিয়াকান্দিতে ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে ভাটার মালিকের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভীমনগর গ্রামের মেসার্স এইচ,এস,বি ব্রিকসের মালিক টুকু মিয়া তার নিজ নামীয় ইট ভাটা ভাড়া দিয়ে বিভিন্ন প্রকারের জালিয়াতি ও প্রতারনার শিকার হয়ে ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভীমনগর গ্রামের মেসার্স এইচ,এস,বি ব্রিকসের মালিক টুকু মিয়া তার নিজ নামীয় ইট ভাটা ভাড়া দিয়ে বিভিন্ন প্রকারের জালিয়াতি ও প্রতারনার শিকার হয়ে ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভীমনগর গ্রামের মেসার্স এইচ,এস,বি ব্রিকসের মালিক টুকু মিয়া জানান, ২০১৮ সালে আমার নিজ নামীয় ইট ভাটা আমি ৫ বৎসরের জন্য ভাড়া দিতে চাইলে রাজবাড়ী সদর উপজেলার ধুঞ্চী গ্রামের জিয়াউদ্দিন মন্ডল, শ্রীপুর মোল্যা বাড়ীর ফরহাদ হোসেন বিকাশ, রাজবাড়ী সোনালী ব্যাংক শাখা কর্মকর্তা মো. কাসেম, গুদার বাজার মো. ওয়াজ কুরুনী আলিফ সাড়ে তিন লাক্ষ টাকায় ভাড়া প্রদান করাসহ সরকারী অফিসিয়াল যাবতীয় খরচ বহনের চুক্তি নামা করা হয়েছিল।

স্ট্যাম্পে চুক্তি হলেও আমি মালিকের ঘরের স্থলে স্বাক্ষীর ঘরে ভুলক্রমে স্বাক্ষর করি । স্ট্যাম্পের চুক্তি নামার আমার একটি ফটোকপি দেওয়ার কথা থাকলেও তা আমাকে না দিয়ে ভারাটিয়ারা বিভিন্ন দপ্তর থেকে আমার নামে আসা ইস্যুকৃত চিঠি গ্রহণ করেন এবং ভারাটিয়া জিয়া উদ্দিন নিজে এইচ,এস,বি ব্রিকসের মালিক দাবি করেন।

২০১৮ সালের ৫ এপ্রিল তারিখে রেজিষ্ট্রি মুলে জিয়াউদ্দিনের নামে চিঠি আসেন কাস্টম অফিস থেকে। চুক্তি অনুযায়ী কোন সরকারী দপ্তরের কার্যক্রম করেন না। শুধু তাই নয় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নামে একটি জাল সার্টিফিকেট নিমিত্ত অনুরোধপত্র তৈরী করে ৪লক্ষ ৫৯ হাজার ৩৬০ টাকা বকেয়া দেখিয়ে আমার নিকট প্রদান করাসহ পরিশোধের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। আমি ডিসি অফিস থেকে জানতে পারলাম জাল করে চিঠি তৈরী করে ভুয়া স্বাক্ষর করে নিচে এইচ,এস,বি ব্রিকস এর সিল মারে অবৈধ ভাবে কাজ কর্ম করেন তারা। কাস্টম অফিসের নামে আমার নিকট হতে এক লক্ষ ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন এবং তা জমা দেন না।

তিনি আরো জানান, আমার নিকট হতে ইট ভাটা লীজ নেওয়ার পর থেকে কোন প্রকার ঋণ গ্রহন করলে তার দায়ভার আমার নয়। গত ২০১৯ সালের এক ডিসেম্বর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, ঢাকার ঘোষনাপত্রে জিয়াউদ্দিন নিজে মালিক সেজে ফরম পুরণ করে জমা প্রদান করেছেন। বিষয়টি আমি জানতে পেরে সংশোধন করেছি। শুধু তাই নয়, তারা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে আমার নামের পরিবর্তে তাদের নিজেদের নামে ট্রেড লাইসেন্স গ্রহণ করেন। পরে তিনি ২০২০ সালের ট্রেড লাইসেন্স নিজের নামে করেন।

তিনি আরো জানান, রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক, দুর্ণীতি দমন কমিশনসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ করায় আমার ইট ভাটা সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে দখল করে রাখবে বলে হুমকি প্রদান করাসহ ভাটার মধ্যে মাদকদ্রব্য বেচা-কেনা ও খাওয়া দাওয়া করে। বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দাবি জানাই।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলার ধুঞ্চী গ্রামের জিয়াউদ্দিন মন্ডল জানান, তাদের পারিবারিক বিষয় আমাদের নামে বিভিন্ন দপ্তরে হয়রানী মূলক ভাবে অয়িযোগ দায়ের করেছেন। তবে এ সকল অভিযোগ সত্য নয়।

No comments:

Post a Comment