বালিয়াকান্দিতে ৫০ হাজার টাকায় প্রতিবন্ধির ৩দিনের সন্তান বিক্রি! - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Tuesday, June 23, 2020

বালিয়াকান্দিতে ৫০ হাজার টাকায় প্রতিবন্ধির ৩দিনের সন্তান বিক্রি!

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে এক প্রতিবন্ধির ৩দিনের সন্তান বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে এক প্রতিবন্ধির ৩দিনের সন্তান বিক্রির অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার সকালে উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের তুলশীবরাট গ্রামে এ সন্তান বিক্রির ঘটনা ঘটে।
বিকালে সরেজমিনে গেলে শিশুর দাদী জমিরণ বিবি বলেন, তার ছেলে সাহিবুল ও পুত্রবধু দু,জনই প্রতিবন্ধি (পাগল)। তারা খাবার দিতে পারে না। তাই দু-সম্পর্কের আত্বীয় সাতক্ষিরায় তাদের সন্তান না থাকায় দেওয়া হয়েছে। তবে কত টাকায় দিলেন এমন প্রশ্নে বলেন, খুশি হয়ে যা দেয়।

সাহিবুলের ভাই খোকনের স্ত্রী আম্বিয়া বেগম বলেন, তার সন্তানাদি না থাকায় ৪ বছর বয়সী সন্তান জুনায়েদকে লালন পালন করছেন। তারা দু,জনই প্রতিবন্ধি হওয়ায় ৩ দিনের শিশু সাতক্ষিরায় জনৈক এক ব্যাক্তিকে দিয়েছেন। তবে কত টাকায় দিয়েছেন তার সঠিক কোন কিছু বলতে অস্বীকার করেন। বিষয়টি তার ভাসুর হাবিল শেখ বলতে পারবেন। ইতিপুর্বে তৃতীয় কন্যাকেও নবাবপুর ইউনিয়নের বেরুলী গ্রামে বিক্রি করেছেন বলেও স্বীকার করেন। বড় ছেলে তারাই লালন পালন করছেন।
এলাকার লোকজন বলেন, এরআগেই একটি কন্যা ২০ হাজার টাকায় বেরুলী এলাকায় বিক্রি করেছেন। রবিবার সকালেও ৫০ হাজার টাকায় একটি কন্যা সাতক্ষিরা এলাকার জনৈক ব্যাক্তির নিকট বিক্রি করেছে। সকালে অটোবাইক যোগে এসে নিয়ে যায়। কোন পরিবার পরিকল্পনা কর্মী এলাকায় যায় না।

তবে সাহিবুল ও তার স্ত্রীর বলেন, খাবার দিতে পারি না তাই দিয়ে দিয়েছি। কত টাকায় বললে বলে, হাবিল শেখ জানে।
জামালপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, এরআগেও শুনেছি একটি মেয়ে বিক্রি করেছে। আজও নাকি ৩দিনের শিশু বাচ্চা বিক্রি করেছে। তবে খোজখবর নিয়ে উদ্ধারের চেষ্টা চালাবো।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এস,এম আল কামাল বলেন, ওই ওয়ার্ডে পরিবার পরিকল্পনা কর্মীর পদ শুন্য রয়েছে। ভিপিকেএ এনজিওকে দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম হেদায়েতুল ইসলাম বলেন, বাচ্চা বিক্রি সামাজিক অপরাধ। যদি কেউ পালন করার জন্য নিয়ে থাকে সেটা আইনানুযায়ী নেওয়া উচিত ছিল। বিষয়টি আমি এখনই অবগত হলাম। খোজখবর নিবো।

No comments:

Post a Comment