বালিয়াকান্দিতে ঔষধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি ক্রেতারা ঘুমিয়ে ঔষধ প্রশাসন ॥ কমিশনে বিক্রি করলেই জরিমানা - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Wednesday, June 10, 2020

বালিয়াকান্দিতে ঔষধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি ক্রেতারা ঘুমিয়ে ঔষধ প্রশাসন ॥ কমিশনে বিক্রি করলেই জরিমানা

বালিয়াকান্দিতে ঔষধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি ক্রেতারা ঘুমিয়ে ঔষধ প্রশাসন ॥ কমিশনে বিক্রি করলেই
জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে ঔষধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে ক্রেতারা। ইচ্ছা মতো দাম হাকিয়ে নিচ্ছে ব্যবসায়ীরা। এতে প্রতারিত হচ্ছে ভোক্তা। ঔষধ প্রশাসনের নেই কোন তদারকি। কোন ব্যবসায়ী কমিশনে ঔষধ বিক্রি করলেই তাকে ব্যবসায়ী সমিতিকে জরিমানা দিতে হচ্ছে।

জানাগেছে, বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বাংলাদেশ মেডিকেল হল। ওই ফার্মেসীতে ঔষধের দাম সব সময়ই শতকরা ৫টাকা কমিশনে বিক্রি করে। এতে বাধসাধে ঔষধ ব্যবসায়ী সমিতি। তাকে দফায় দফায় জরিমানা গুনতে হয়। হতে হয় শারিরিক ও মানসিক চাপের স্বীকার। এক ঔষধ ক্রেতার নিকট থেকে ৫ টাকা কম নেওয়ার অপরাধে নারুয়া বাজার ঔষধ ব্যবসায়ী সমিতি তাকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করে।

 বিষয়টি এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি ও স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের দানা বাধে। বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় নারুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালামর মাষ্টারের সভাপতিত্বে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা ঔষধ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এস,এম দাউদ খান, মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী খান, সাবেক ইউপি সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম, নারুয়া বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারন সম্পাদক আব্দুল গনি শেখসহ স্থানীয় ইউপি সদস্য, ঔষধ ব্যবসায়ী, বাজারের ব্যবসায়ীদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এ বৈঠকে ঔষধ ব্যবসায়ী রবীন সাহার বিরুদ্ধে একাধিক ব্যাক্তি ঔষধের দাম বেশি নেওয়া, বাংলাদেশ মেডিকেল হলের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়াসহ সাধারন মানুষের সাথে অসাধাচরনের অভিযোগ উঠে।
উপজেলা ঔষধ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এস,এম দাউদ খান বলেন, সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫% কমিশনে ঔষধ বিক্রি করতে পারবে। আমরা ঔষধ প্রশাসনের স্থানীয় প্রতিনিধির সাথে বৈঠকের মাধ্যমেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখন থেকে কোন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলে উপজেলা সমিতির প্রতিনিধি ছাড়া কোন জরিমানা করা যাবে না।

এ বৈঠকে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনির সিদ্ধান্ত ঘোষনা করেন, রবীন সাহা উপস্থিত সকলের নিকট ক্ষমা চেয়ে নেন। বাংলাদেশ মেডিকেল হলের মালিককে জরিমানাকৃত ৬ হাজার টাকা দেওয়া লাগবে না। আগামী জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ঔষধ বিক্রি করলে তার ভাউচার দিতে হবে। কোন ব্যবসায়ীর লাইসেন্স না থাকলে ঔষধ প্রশাসনে আবেদন করে লাইসেন্স গ্রহন করতে হবে।

 নারুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের অভিযোগ যাতে কোন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে না উঠে সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

No comments:

Post a Comment