বালিয়াকান্দিতে আবারও ৩ কৃষকের ৫ টি গরু চুরি - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Tuesday, July 7, 2020

বালিয়াকান্দিতে আবারও ৩ কৃষকের ৫ টি গরু চুরি

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে গরু চুরির হিড়িক পড়েছে। আবারও  ৩ কৃষকে গোয়াল থেকে গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।

পারভেজ মিয়া,বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে গরু চুরির হিড়িক পড়েছে। আবারও  ৩ কৃষকে গোয়াল থেকে গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।
সোমবার রাতে উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের গোসাই গোবিন্দপুর গ্রামের সোরাপ মিয়ার ছেলে সুরুজ মিয়ার ১টি এড়ে, মান্নান মোল্যার ছেলে মতিন মোল্যার ২টি ও অনিল দের ছেলে অসীম দের ২টি গরু গোয়াল থেকে চুরি হয়েছে। সকালে গরু চুরির বিষয়টি টের পান কৃষকরা।

এদিকে চুরি হওয়া ২টি গরু আরিচা ঘাট থেকে উদ্ধার করা হয়। এ খবরটি ছড়িয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার চোরের গোয়াল থেকে আরো দু,টি গরু উদ্ধার হয়েছে। ওই গরু দু,টির মালিক উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের ভররামদিয়া গ্রামের ফরমান শেখের ছেলে ছিরু শেখের নিকট বুঝে দেওয়া হয়েছে। গরু দু,টি বুঝে দেওয়ার সময় উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ, বহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, নবাবপুর ইউনিয়নের সদস্য কাবিল উদ্দিন, সাদ্দাম ফকির, থানা পুলিশ ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের উপস্থিত ছিলেন। তবে অভিযুক্ত পলাতক থাকলেও তার কাছ থেকে ক্রয়কৃত গরু অনেকেই বাড়ীতে রেখে আসছেন। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
ছিরু শেখ বলেন, গত ১২ জুন রাতে  তার বাড়ীর গোয়াল ঘর থেকে একটি গাভী ও একটি ষাড় ( আড়ে) চোরেরা চুরি করে নিয়ে গেছে। ভোরে গোয়ালে গিয়ে গরু না পেয়ে আশপাশে অনেক খোজাখুজির বৃহস্পতিবার গরু ২টি উদ্ধার হয়েছে।

বুধবার বিকালে অভিযুক্ত নবাবপুর ইউনিয়নের মেচুয়াঘাটা গ্রামের হাসেম মন্ডলের ছেলে রোকন ওরফে আবুল মন্ডলের বাড়ীতে গেলেও তাকে বাড়ীতে পাওয়া যায়নি। তার বাড়ীর খামারে ১১টি গরু রয়েছে। বিকালে স্থানীয় গ্রাম পুলিশ নিয়ে এসে মেচুয়াঘাটা গ্রামের তোফাজ্জেল মিয়ার ছেলে আবুল মিয়া একটি গরু বাড়ীতে রেখে গেছেন বলে রোকনের স্ত্রী বলেন। তিনি বলেন, আমার স্বামী প্রায় ১৭ বছর ধরে গরুর ব্যবসা করে। প্রায় ৫ বছর ধরে গরু পালন করছি। গরু আমার স্বামী ক্রয় করে বিক্রি করেছে। আমরা সেই গরুর মালিককে খুজছি। তবে রোকন কোথায় আছে সেটি তারা জানেন না বলে জানান।

মেচুয়াঘাটা গ্রামের আবুল মিয়া বলেন, গত মঙ্গলবার রোকনের ছেলে ফুরাদের নিকট থেকে ৬০ হাজার ৫শত টাকা মুল্যের একটি গরু ৪০ হাজার টাকা নগদ দিয়ে গরুটি আমার ছেলে বাড়ী নিয়ে আসে। গরুটি কালুখালীর বথুনদিয়া বাজার এলাকা থেকে ক্রয় করেছেন বলে প্রকাশ করে। রাত ১১টার দিকে খবর পাই দেওয়ালীর হোসেন ব্যাপারী চোরাই গরু কিনেছেন রোকনের নিকট থেকে। ৯দিন খাওয়ানোর পর বুধবার গরুটি তাদের বাড়ীতে দিয়ে এসেছি।

নবাবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য কাবিল উদ্দিন বলেন, উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের পদমদী পুর্বপাড়া গ্রামের আলিমদ্দিনের ২টি গরু চুরি হয়। মঙ্গলবার আরিচা ঘাটের শহীদ ব্যাপারীর মাধ্যমে গরু দু,টি উদ্ধার করে মালিককে প্রদান করা হয়েছে।

নবাবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হাসান আলী বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে নবাবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে ১০-১৫টি গরু চুরি হয়। আরিচা ঘাটে গিয়ে ধরা পড়ে চোরাই গরু। গরু রোকন বিক্রি করেছে বলে ওই ব্যাপারী প্রকাশ করে। এখনও রোকনের বাড়ীতে ১০-১২টি গরু রয়েছে। তবে রোকন পলাতক রয়েছে।

No comments:

Post a Comment