সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭৩ তম জন্ম বার্ষিকী আজ - Bangla News 24 Online

BANGLA NEWS 24 ONLINE বাংলা নিউজ ২৪ অনলাইন। Bangla Newspaper বাংলা নিউজ পেপার - BD News 24, BD News Today and Banlga News Today ||

Breaking

Home Top Ad

Friday, November 13, 2020

সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭৩ তম জন্ম বার্ষিকী আজ

বাংলা সাহিত্যের মুসলিম ধারার দিকপাল, কালজয়ী ঔপন্যাসিক, নাট্যকর, প্রাবন্ধিক ও  বিষাদ সিন্ধুর রচয়িতা কথাসাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭৩ তম জন্ম বার্ষিকী আজ।


ফারুক হোসেন,বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি ॥ বাংলা সাহিত্যের মুসলিম ধারার দিকপাল, কালজয়ী ঔপন্যাসিক, নাট্যকর, প্রাবন্ধিক ও  বিষাদ সিন্ধুর রচয়িতা কথাসাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭৩ তম জন্ম বার্ষিকী আজ। ১৮৪৭ সালের ১৩ই নভেম্বর এই দিনে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার লাহিনীপাড়া গ্রামের মাতুলায়ে জন্মগ্রহণ করেন মীর মশাররফ হোসেন।

বাঙ্গালি জাতির মুসলিম সমাজের প্রথম প্রবাদপ্রতিম ও জনপ্রিয় এই লেখক গল্প, উপন্যাস, নাটক, কবিতা, আত্মজীবনী  প্রবন্ধ ও ধর্মবিষয়ক ৩৭টি গ্রন্থ রচনা করেছেন তিনি। তার রচনা সমগ্রর মধ্যে বিষাদ সিন্ধু, জমিদার দর্পন, রত্নাবতী, গৌরি সেতু, বসন্ত কুমারী, সংগীত লহরী , উদাসীন পথিকের মনের কথা, মদিনার গৌরব, গো-জীবন, বেহুলা গীতাভিনয়, গাজী মিয়ার বোস্তানী, এর উপায় কি, তহমিনা, নিয়তি কি অবনিত, মৌলদ শরীফ, বিবি খোদেজার বিবাহ, হযরত ওমরের ধর্মজীবন লাভ, বাজীমাৎ, আমার জীবনী, আমার জীবনের জীবনী বিবি কুলসুম, ও বৃহৎ হীরক উল্লেখযোগ্য । 


মীর মশাররফ হোসেনের “আমার জীবনী গ্রন্থ” থেকে জানা যায়, কুমারখালীর কাঙ্গাল হরিনাথ মজুমদার ছিলেন তার সাহিত্যগুরু । হরিনাথ মজুমদারের সম্পাদনায় প্রকাশিত “গ্রামবার্তা প্রকাশিকা” ও ইশ্বর গুপ্তের “সংবাদ প্রভাকর” নামক পত্রিকা দুটিতে মশাররফ হোসেনের সাহিত্য, দর্শন বিজ্ঞানসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ প্রকাশের পাশাপাশি অত্যন্ত সাহসিকতার সাথে জমিদার ও ব্রিটিশ নীলকরদের অত্যাাচারের কাহিনী প্রকাশ করেন। 

নীল বিদ্রোহের উপরে “জমিদার দর্পন” সহ প্রায় ২৫টি গ্রন্থ রচনা করে মীর মশাররফ হোসেন বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে প্রথম আধুনিক গদ্য শিল্পীর মর্যাদা লাভ করেন । তার সম্পাদিত ‘হিতকরী’ (১৮৯০) পত্রিকায় বাউল শিরোমনি লালন ফকিরের উপরে প্রথম লালন দর্শন মহাত্মা লালন ফকির প্রকাশিত হয় । 


কুষ্টিয়ায় জন্ম হলেও মীর মশাররফ হোসেনের শৈশব, কৈশোর, যৌবন সবই কেটেছে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের পদমদী গ্রামে । জীবনের শেষ দিনগুলোও পদমদী গ্রামে অতিবাহিত করেন এই সাহিত্যিক। তার সহধর্মিনী কুলসুমও এখানে মারা যান । তার পিতা মীর মোয়াজ্জেম হোসেনসহ পরিবারের অন্য সদস্যদেরও পদমদীর নবাব বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়। ১৯১২ সালের ১৯ডিসেম্বর পদমদীতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আম্বিয়া সুলতানা জানান,  মীর মশাররফ হোসেনের ১৭৩তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মীর মশাররফ হোসেনের সমাধীস্থলে পুষ্পমাল্য অর্পন করাসহ উপজেলার মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের অনলাইনে কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে । 

No comments:

Post a Comment